পোস্টমর্টেমকে বাংলায় কেন ‘ময়নাতদন্ত’ বলা হয়?

ময়না পাখি দেখতে মিশমিশে কালো এবং তার ঠোঁট হলুদ। এই পাখি প্রায় তিন থেকে তেরো রকম ভাবে ডাকতে পারে।

অন্ধকারে ময়না পাখিকে দেখা যায় না চোখে। অন্ধকারের কালোয় নিজের কালোকে লুকিয়ে রাখে এরা।

শুধুমাত্র অভিজ্ঞ মানুষ তার ডাক শুনে বুঝতে পারেন যে, এটা ময়না পাখি! না দেখা ময়নাকে যেমন অন্ধকারে শুধু কণ্ঠস্বর শুনে আবিষ্কার করা যায়, তেমনই পোস্টমর্টেমেও অন্ধকারে থাকা কারণকে সামান্য সূত্র দিয়ে আবিষ্কার করা হয়। সামান্য সূত্র থেকে আবিষ্কার হয় বড় থেকে বড় রহস্যের সমাধান। পাওয়া যায় আসল অপরাধীদের। পাওয়া যায় মৃত্যুর কারণ।

তাই ‘পোস্ট মর্টেমের’ বাংলা হয়েছে – ‘ময়না তদন্ত’।

অন্য একটি মতবাদ অবশ্য প্রচলিত আছে-

উর্দু শব্দ MOAINA (معائنہ) অর্থ হচ্ছে ইংরেজিতে INSPECTION আর বাংলায় ‘নিরীক্ষা’, যা পরবর্তীতে বিবর্তিত হয়ে বাংলায় ‘ময়না’ তদন্ত হিসেবে উচ্চারিত হয়ে আসছে!

পায়ের বৃদ্ধাঙ্গুলির নখ তুলে ফেলার পর পুনরায় কি নখ গজায়? গজালে, কত সময় লাগতে পারে?

এখানে আপনি বোধ হয়, পুরোপুরি উপড়ে ফেলা নখ পুনরায় গজায় কিনা জিজ্ঞেস করেছেন।

সাধারণত খেলতে গিয়ে আঘাত পেয়ে কিংবা পেরোনাইকিয়া নামক নখের রোগে (নখের কোণা আঙ্গুলের মাংসে ঢুকে পুঁজ জমে) চিকিৎসা হিসেবে নখ উপড়ে ফেলা হয়, যা পরবর্তীতে গজাবে কিনা তা নিয়ে অনেকে চিন্তিত হয়ে পরেন।

দেখুন, কোষ হিসেবে আমাদের শরীরে চুল আর নখের বৈশিষ্ট্য প্রায় একই রকম- চুল/নখের আগা কাটলে ব্যাথা পাওয়া যায় না, পুনরায় গজায় ইত্যাদি যা আমরা সবাই জানি। শুধু এক জায়গায় পার্থক্য- মাথা ন্যাড়া করে চুল একেবারে ফেলে দেওয়ার পর এক-দু’মাস পরই নতুন চুল গজায়, অন্যদিকে নখ পুরোপুরি উপড়ে ফেলার প্রায় ১২-১৮মাস পর ঐ নখ পুরোপুরি আগের রূপ পায়।

Loading...